1. editor@madaripursomoy.com : Madaripur Somoy : Madaripur Somoy
  2. admin@madaripursomoy.com : মাদারীপুরসময় ডটকম : মাদারীপুরসময় ডটকম
  3. news@madaripursomoy.com : Madaripur Somoy : Madaripur Somoy
পরীক্ষার খাতা মূল্যায়নে অবহেলা; শিবচর নন্দকুমার ইন্সটেটিউটের প্রধান শিক্ষকসহ মাদারীপুরের চার শিক্ষক ৫ বছরের জন্য নিষিদ্ধ - মাদারীপুরসময় ডটকম
মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০২৪, ০৬:০২ পূর্বাহ্ন
সর্বশেষ :
কালকিনিতে বঙ্গবন্ধু ও বঙ্গমাতা গোল্ডকাপের ফাইনাল খেলা অনুষ্ঠিত কালকিনিতে উপজেলা পাবলিক লাইব্রেরীর উদ্বোধন কালকিনিতে জমি সংক্রান্ত বিরোধের জেরে সংঘর্ষে যুবক নিহত,আহত ৫ ডাসারে ব্রীজের সাথে সাঁকো দিয়ে ভোগান্তি লাঘবের চেষ্টা যোগ্যদের বাদ দিয়ে কালকিনি প্রেসক্লাবের ঘরোয়া কমিটি ঘোষণার অভিযোগ কালকিনিতে উপজেলা পরিষদের মাসিক সাধারন সভা অনুষ্ঠিত কালকিনি পৌরসভাকে পরিচ্ছন্ন রাখতে বর্জ্য ব্যবস্থাপনায় আধুনিকায়ন কালকিনিতে মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে এক মাদক ব্যবসায়ীকে সাজা প্রদান মাদারীপুরের বরযাত্রীবাহী মাইক্রোবাস খালে,নিহত ১০ মাদারীপুরে স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন ডিকেবিডিসি’র পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠিত

পরীক্ষার খাতা মূল্যায়নে অবহেলা; শিবচর নন্দকুমার ইন্সটেটিউটের প্রধান শিক্ষকসহ মাদারীপুরের চার শিক্ষক ৫ বছরের জন্য নিষিদ্ধ

  • প্রকাশের সময় : বুধবার, ৬ সেপ্টেম্বর, ২০২৩
  • ৫০৭ বার পঠিত
6 9 23.madaripursomoy 12
print news

মাদারীপুরসময় ডটকম ডেক্স :

চলতি বছরের এসএসসি পরীক্ষার খাতা মূল্যায়নে অবহেলা করায় মাদারীপুর জেলার ৩ প্রধান শিক্ষক ও ১ সহকারী প্রধান শিক্ষককে ৫ বছরের জন্য নিষিদ্ধ করেছে ঢাকা মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড।

মঙ্গলবার কালো তালিকাভুক্ত এসব শিক্ষকদের নামের তালিকা প্রকাশ করে ঢাকা মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড। বোর্ডের চেয়ারম্যানের নির্দেশক্রমে পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক প্রফেসর মোঃআবুল বাশার স্বাক্ষরিত এক নোটিশে এ তথ্য প্রকাশ করা হয়। এতে মাদারীপুর জেলার তিন প্রধান শিক্ষক ও এক সহকারী প্রধান শিক্ষক ছাড়াও ঢাকা বোর্ডের অধীনে অন্যান্য জেলার বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের আরো ৩৫ জন (মোট ৩৯ জন) শিক্ষক রয়েছেন।

তালিকায় অভিযুক্ত শিক্ষকগন আগামী ৫ বছর বোর্ডের অধীনে কোনো পাবলিক পরীক্ষায় দায়িত্ব পালন করতে পারবেন না বলে জানানো হয় নোটিশে।

কালো তালিকায় মাদারীপুর জেলার শিক্ষকরা হলেন কালকিনি উপজেলার সাহেবরামপুর হাকিমুন্নেছা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ বাশার আহমেদ,মাদারীপুর সদর উপজেলার চরগোবিন্দপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ ফজলুল হক মিয়া,শিবচর উপজেলার শিবচর নন্দকুমার মডেল ইন্সটেটিউট এর প্রধান শিক্ষক মোঃ হারুন অর রশীদ মিয়া এবং কালকিনি উপজেলার কালকিনি সৈয়দ আবুল হোসেন একাডেমীর সহকারী প্রধান শিক্ষক মোঃ জামাল হোসেন।

জানা যায়,সদ্য প্রকাশিত এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফলাফলে সন্তুষ্ট না হয়ে খাতা চ্যালেঞ্জ করেন বহু পরীক্ষার্থী।এদের মধ্যে ১১ হাজার ৩৬২ পরীক্ষার্থীর ফল পরিবর্তন হয়েছে।প্রথমবার প্রকাশিত ফলাফলে ফেল করেছেন এমন দুই হাজার ২১২ জন শিক্ষার্থী পরবর্তীতে পাস করেছে।
এছাড়া নতুন করে জিপিএ-৫ পেয়েছেন এক হাজার ৮১১ জন শিক্ষার্থী।এমনকি প্রথমে ফেল করা ৬ জন শিক্ষার্থী পরবর্তীতে শুধু পাশ নয়,তারা জিপিএ-৫ পেয়েছেন।

এত বিপুলসংখ্যক পরীক্ষার্থীর ফল প্রথমবার ভুল আসার পেছনে পরীক্ষকদের গাফিলতির বিষয়টি চিহ্নিত করেছে বোর্ড।

শিক্ষকদের এরকম ভুলে ভুক্তভোগী ছাত্রছাত্রীদের জীবন শেষ হয়ে যেতে পারতো বলে অভিযোগ করেছে অভিভাবকরা। তাছাড়া শিক্ষকদের এমন গাফিলতির কারণে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন সচেতন মহল।

Please Share This Post in Your Social Media

এ জাতীয় আরও খবর
এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি। সকল স্বত্ব madaripursomoy.com কর্তৃক সংরক্ষিত
Theme Customized By Shakil IT Park

এই ওয়েবসাইটের সকল স্বত্ব madaripursomoy.com কর্তৃক সংরক্ষিত