1. editor@madaripursomoy.com : Madaripur Somoy : Madaripur Somoy
  2. admin@madaripursomoy.com : মাদারীপুরসময় ডটকম : মাদারীপুরসময় ডটকম
  3. news@madaripursomoy.com : Madaripur Somoy : Madaripur Somoy
অনাগত সন্তানের মুখটিও দেখা হলো না আউয়ালের - মাদারীপুরসময় ডটকম
সোমবার, ১৫ জুলাই ২০২৪, ১১:০৩ অপরাহ্ন
সর্বশেষ :
কালকিনিতে বঙ্গবন্ধু ও বঙ্গমাতা গোল্ডকাপের ফাইনাল খেলা অনুষ্ঠিত কালকিনিতে উপজেলা পাবলিক লাইব্রেরীর উদ্বোধন কালকিনিতে জমি সংক্রান্ত বিরোধের জেরে সংঘর্ষে যুবক নিহত,আহত ৫ ডাসারে ব্রীজের সাথে সাঁকো দিয়ে ভোগান্তি লাঘবের চেষ্টা যোগ্যদের বাদ দিয়ে কালকিনি প্রেসক্লাবের ঘরোয়া কমিটি ঘোষণার অভিযোগ কালকিনিতে উপজেলা পরিষদের মাসিক সাধারন সভা অনুষ্ঠিত কালকিনি পৌরসভাকে পরিচ্ছন্ন রাখতে বর্জ্য ব্যবস্থাপনায় আধুনিকায়ন কালকিনিতে মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে এক মাদক ব্যবসায়ীকে সাজা প্রদান মাদারীপুরের বরযাত্রীবাহী মাইক্রোবাস খালে,নিহত ১০ মাদারীপুরে স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন ডিকেবিডিসি’র পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠিত

অনাগত সন্তানের মুখটিও দেখা হলো না আউয়ালের

  • প্রকাশের সময় : সোমবার, ২৮ আগস্ট, ২০২৩
  • ২৪০ বার পঠিত
28 8 23.madaripur 2
print news

জেলা প্রতিনিধি মাদারীপুর

‘আমার ছেলের সঙ্গে গত পরশুদিন শেষ কথা হয়েছে। ওই দিন আমারে বিকাশে আড়াই হাজার টাকা দিয়েছে আর বলেছে আব্বা বেতন পাই নাই। বেতন পাইলে আরও টাকা দিবো, এখন চলেন। আমার ছেলে আমাকে প্রতি মাসে হাত খরচের জন্য ৪ হাজার টাকা দিতো। ওইদিনই ছেলের সঙ্গে আমার শেষ কথা হয়েছে।’ কথাগুলো বলেই কান্নায় ভেঙে পড়েন বৃদ্ধ তোফায়েল হাওলাদার।

বৃহস্পতিবার (২৪ আগস্ট) রাতে পিকনিকের জন্য সিলেটে যাওয়ার পথে ঢাকার সাভারের এস.বি. নিটিং কোম্পানির ৬ কর্মকর্তাসহ সাতজন নিহত হন। ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের নরসিংদীর শিবপুর ইউনিয়নের ঘাসিরদিয়া এলাকায় ট্রাক-মাইক্রোবাস মুখোমুখি সংঘর্ষে এই দুর্ঘটনা ঘটে।

এই ঘটনায় মাদারীপুরের কালকিনি উপজেলার উত্তর কৃষ্ণনগর এলাকার তোফায়ের হাওলাদারের ছেলে আব্দুল আউয়ালও (৪০) নিহত হন। শুক্রবার (২৫ আগস্ট) নিহতের খবর জানার পর থেকে তার বাড়িতে চলছে শোকের মাতম।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, কালকিনি উপজেলার উত্তর কৃষ্ণনগর এলাকার আব্দুল আউয়াল প্রায় ২০ বছর ধরে ঢাকার সাভার এলাকার এস.বি. নিটিং কোম্পানিতে ফেব্রিক ইনচার্জ হিসেবে চাকরি করছেন। তার স্ত্রী শামীমা আক্তার সন্তানসম্ভবা। এই মাসেই সন্তান জন্ম দেবেন তিনি। এছাড়াও তার রহিমা (১০) ও হাবিবা (৫) নামে দুই মেয়ে আছে।

চাকরির সুবাদে আউয়াল সাভারে থাকতেন। স্ত্রী ও সন্তানরা গ্রামের বাড়িতে থাকেন। ছুটি পেলে গ্রামের বাড়িতে আসতেন তিনি। স্ত্রীর সন্তান হবে বলে বর্তমানে তিনি তার বাবার বাড়িতে আছেন।

নিহত আউয়ালে স্ত্রী শামীমা আক্তারের সঙ্গে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, আমার অনাগত সন্তান তার বাবার মুখটিও দেখতে পেলো না। এখন আমার অনাগত সন্তান ও দুই মেয়ের কী হবে। আমরা তাকে ছাড়া কীভাবে বাঁচবো।

কালকিনির ৪, ৫, ৬নং ওয়ার্ডের সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর হাচিনা বেগম বলেন, আউয়াল খুব ভালো ছেলে ছিল। সে সবসময় পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ পড়তো। সড়ক দুর্ঘটনা আউয়াল মারা গেছে শুনে খুব কষ্ট পেয়েছি। ওর পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানাই।

কালকিনি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. কায়েসুর রহমান বলেন, আমি আপনার কাছ থেকে জানলাম। তার পরিবারকে সমবেদনা জানাই এবং আউয়ালের মরদেহ ঢাকা থেকে আনতে যদি আমাদের সহযোগিতা লাগে তাহলে আমরা প্রশাসনের পক্ষ থেকে তার ব্যবস্থা করবো।

Please Share This Post in Your Social Media

এ জাতীয় আরও খবর
এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি। সকল স্বত্ব madaripursomoy.com কর্তৃক সংরক্ষিত
Theme Customized By Shakil IT Park

এই ওয়েবসাইটের সকল স্বত্ব madaripursomoy.com কর্তৃক সংরক্ষিত